করোনা মোকাবিলার সামর্থ নেই, ধনী দেশগুলিকে পাশে চায় পাকিস্তান

0
55

ইসলামাবাদ: ইউরোপের সীমা ছাড়িয়ে এবার করোনা ভাইরাস থাবা বসাতে শুরু করেছে এশিয়ার দেশগুলিতে৷ চিন থেকে গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে মারণ করোনা ভাইরাস৷ ভারতের পাশাপাশি পাকিস্তানেও থাবা বসিয়েছে মারণ করোনা৷ ইতিমধ্যেই পাকিস্তানে প্রায় ২০০ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে৷

পাকিস্তানে করোনা আরও ভয়াবহ রূপ নিতে পারে বলে আশঙ্কা করছে সরকার৷ সেই কারণেই এবার বিশ্বের ধনী দেশগুলির কাছে সরাসরি সাহায্য চেয়ে বসলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান৷ পাকিস্তানের সব ঋণ মুকুব করে দেওয়ারও আবেদন জানিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান৷

বিশ্বজুড়ে আতঙ্ক বাড়াচ্ছে মারণ করোনা ভাইরাস৷ ইতিমধ্য়েই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হযে গোটা বিশ্বে আট হাজারের কাছাকাছি মানুষের মৃ্ত্য়ু হয়েছে৷ লক্ষ-লক্ষ মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন৷ ইতালিতে ভয়ঙ্কর রূপ নিয়েছে মারণ করোনা৷ দিনে-দিনে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা৷

প্রাণভয়ে ঘর ছেড়ে বাইরে বেরোতে সাহস করছেন না অনেকে৷ ভারতে এখনও পর্যন্ত ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি করতে পারেনি করোনা৷ যদিও ইতিমধ্যেই ভারতে ১৬৯ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ টের পাওয়া গিয়েছে৷

এদিকে, পাকিস্তানে ক্রমেই আতঙ্ক বাড়াচ্ছে করোনা ভাইরাস৷ পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের গলায় সেই আতঙ্কের সুর৷ করোনা মোকাবিলায় কোনও সামর্থই নেই পাকিস্তানের৷ এবার সরাসরি তা স্বীকারও করে নিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী৷

ইমরানের কথায়, ‘আমরা গরিব দেশ৷ করোনা ভাইরাসের মোকাবিলায় যে চিকিতসা পরিকাঠামো প্রয়োজন তা পাকিস্তানের নেই৷ গরিব ও বহু ক্ষুধার্ত মানুষের দেশ পাকিস্তান৷ ধনী দেশগুলির উচিত এই পরিস্থিতিতে পাকিস্তানের পাশে দাঁড়ানো৷ পাকিস্তানের সব ঋণও মুকুব করে দেওয়া উচিত৷’

পাক প্রধানমন্ত্রী তাঁর করোনা মোকাবিলা প্রসঙ্গে জানানো মন্তব্যে ভারতের প্রসঙ্গ টেনেছেন৷ ভারতও পাকিস্তানের মতোই করোনা মোকাবিলা করতে পুরোপুরি অক্ষম বলেই মনে করেন ইমরান খান৷ নিজের দেশের সঙ্গ একই বন্ধনীতে ভারতে রেখে বিশ্বের ধনী দেশগুলির কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী৷ যদিও ভারত করোনা ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করার জন্য কোনও দেশের সাহায্য চায়নি। উল্টে ভারত চিনকে ১৫ টন মেডিক্যাল সরঞ্জাম দিয়ে সাহায্য করেছে।

এখনও পর্যন্ত পাকিস্তানে প্রায় ২০০ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বলে ইমরান খানের সরকার দাবি করেছে। ভারত থেকে যে শিয়া মুসলিমরা ইরানে গিয়েছিলেন তাঁদের প্রত্যেকের দেহে করোনা ভাইরাস মিলেছে। এখন তাঁদেরকে ইরানেই রেখে চিকিৎসার ব্যাবস্থা করা হচ্ছে।

পাকিস্তান থেকেও হাজারের বেশি মানুষ ইরানে গিয়েছিলেন৷ যাঁদের কোনও পরীক্ষা না করিয়েই পাকিস্তানে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। পাকিস্তানে যে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ আরও তীব্র হতে পারে এই ঘটনার জেরেই সেই আশঙ্কা আরও বেড়েছে৷ এরই মধ্যে বিশ্বের কাছে করোনা মোকাবিলায় সাহায্য চেয়ে বসলেন পাক প্রধানমন্ত্রী৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here