মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বজুড়ে চলছে লকডাউন। এতে স্থবির হয়ে পড়েছে বিশ্ব। প্রাণঘাতী এই ভাইরাস থাবা বসিয়েছে বাংলাদেশেও। তবুও করোনার ঝুঁকির মাঝেও ছুটির চার দিনে রেকর্ড পরিমাণ ভ্যাট আদায় হয়েছে।

জানা যায়, আইনি বাধ্যবাধকতার কারণে ১২ থেকে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত দেশের ২৫২টি ভ্যাট সার্কেল খোলা রাখে এনবিআর। এই সময় জরিমানা ছাড়াই রিটার্ন দাখিলে সহায়তার জন্য অফিস খোলা রাখা হয়।

অবশেষে ঝুঁকি নিয়ে সফল হয়েছে এনবিআর।

চার দিনে প্রায় ৩১ হাজার রিটার্ন দাখিল করেছেন ব্যবসায়ীরা। আর রাজস্ব আদায় হয়েছে ছয় হাজার কোটি টাকারও বেশি। এই দুর্যোগে আদায় রাজস্ব সরকারের চলমান অর্থনৈতিক চাপ সামলাতে সহায়তা করবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।
এনবিআর সূত্র জানায়, সংস্থার আওতাধীন এলটিইউসহ ১২টি ভ্যাট কমিশনারেট এবং ২৫২টি ভ্যাট সার্কেল রয়েছে। দেশে বর্তমানে ভ্যাট নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা এক লাখ ৫৩ হাজার ৫৬৯টি।

জরিমানা ছাড়াই রিটার্ন দাখিলে ১২ থেকে ১৫ এপ্রিল চার দিনের জন্য সীমিত আকারে অফিস খোলা রাখা হয়।
তৃতীয় দিন মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) পহেলা বৈশাখের কারণে ব্যাংক বন্ধ ছিল। সেজন্য তৃতীয় দিন রিটার্ন ও রাজস্ব কম আহরিত হয়। তবে শেষদিন বুধবার (১৫ এপ্রিল) করদাতাদের সুবিধার কথা বিবেচনায় রেখে বিকেল ৫টা পর্যন্ত খোলা রাখা হয়।

সূত্র জানায়, চার দিনে মোট ৩০ হাজার ৭৮১টি রিটার্ন জমা পড়েছে। এর মধ্যে ম্যানুয়াল দাখিলপত্র ১০ হাজার ৯৯৫টি আর অনলাইনে দাখিলপত্র ১৯ হাজার ৭৮৬টি। চার দিনে মোট রাজস্ব আদায় হয়েছে ছয় হাজার ২৮৩ কোটি ৩৭ লাখ টাকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here